লংগদুতে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় কিশোরীর দেহ উদ্ধার

0 ৭৭
।। আলোকিত লংগদু ডেক্স ।।
রাঙামাটির লংগদুতে ঘরের চালার ধর্নার সাথে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় নাছরিন আক্তার(১৪) নামের এক কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের সদস্যরা পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটে বলে খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (২০ জুলাই) বেলা এগাটার সময় উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়নের হাজাছড়া গ্রামে। নিহত কিশোরী ঐএলাকার বাসিন্দা মোঃ ছাইদুল ইসলামের মেয়ে। নিহতের পারিবারের সদস্যরা জানায়, আমরা বিভিন্ন কাজে ঘরের বাইরে ছিলাম। তখন নাছরিন আক্তার একাই ঘরের ভিতর ছিলো। অনুমানিক বেলা এগারটার সময় ঘরের ভিতর আমরা একটা ওড়না দিয়ে তার গলায় বেঁধে ঘরের ধরনার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় নাছরিন আক্তারকে দেখতে পাই। তখন সবাই মিলে ওড়না কেটে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পৌছার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মৃত ঘোষনা করে। লংগদু থানার এস.আই. মহব্বত হোসেন জানান, গলায় ফাঁস দিয়ে একটি কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে এবং তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়েছে জেনে আমি আমার সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে প্রাথমিক জিঙ্গাবাদ ও তদন্ত শেষে মৃত দেহ থানায় নিয়ে আসা হয়। মেয়েটির গলায় একটি ওড়ানা পেচানো ও গলায় দাগের রয়েছে। এছাড়া শরীরের অন্যকোন আঘাতের নমুনা দেখা যায়নি। ময়না তদন্তের জন্য ওই কিশোরীর মৃত দেহ রাঙামাটির মর্গে প্রেরণ করা হবে। ময়না তদন্তের রির্পোট আসলে মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে। এলাকাবাসীরা জানায়, কিশোরী মেয়েটি দেখতে সুন্দর ছিলো। সে স্থানীয় বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। পড়া-লেখায় ভালো ছিলো। নিহত নাছরিন আক্তার কেন আত্মহত্যা করেছে এব্যাপারে তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন কারণ বলতে পারেনি।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।