মাদ্রাসায় বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধনের সুযোগ ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত

0 ১১০

২০১৯-২০ অর্থবছরে থেকে সব ধরনের বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের টাকা জিটুপি পদ্ধতিতে অনলাইনে ইএফটির মাধ্যমে সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হচ্ছে। তবে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে আসা শিক্ষার্থীদের তথ্যের বিভিন্ন রকম ভুল রয়েছে। ফলে শিক্ষার্থীদের বৃত্তির টাকা পাঠাতে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের বৃত্তির টাকা ‘বাউন্স ব্যাক’ হচ্ছে। এ সমস্যা দূর করতে মাদরাসাগুলোকে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধন করার সুযোগ দিয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। Madrasa Board Scholarship

গত ২৯ সেপ্টেম্বর মধ্যে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধন চললেও মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর সে সময় বাড়িয়েছে। পুনঃনির্ধারিত সময়ে আগামী ২৭ নভেম্বরের মধ্যে বৃত্তিপ্রাপ্ত মাদরাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধনের সুযোগ দেয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধন করার নির্দেশ দিয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। Madrasa Board Scholarship

উপযুক্ত বিষয় ও সূত্রের আলােকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণকে জানানাে যাচ্ছে যে , ২০১৯ ২০২০ অর্থ বছরের রাজস্ব খাতভুক্ত বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বৃত্তির অর্থ G2P পদ্ধতিতে EFT এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবে প্রেরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে । সূত্রোক্ত ১ নং স্মারক মােতাবেক কিছু শিক্ষার্থীর ব্যাংক হিসাব নম্বরসহ যথাযথ তথ্য না থাকায় EFT Bounced Back হয়েছে মর্মে অর্থ বিভাগ , অর্থ মন্ত্রণালয়ের SPFMSP প্রকল্প থেকে জানানাে হয় । এ প্রেক্ষিতে ২০.০৯.২০২০ খ্রি . তারিখের মধ্যে Bounced Back কৃত শিক্ষার্থীদের বৃত্তির অর্থ ব্যাংক হিসাবে দ্রুত প্রেরণের লক্ষ্যে MIS- এ তথ্য সংশােধনের জন্য সূত্রোক্ত ১ নং স্মারকের পত্রের মাধ্যমে অনুরােধ করা হয়েছিল । কিন্তু অদ্যাবধি Bounced Back কৃত বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠান হতে MIS- এ সংশােধন করা হয়নি ।

২।এমতাবস্থায় Bounced Back কৃত শিক্ষার্থীদের বৃত্তির অর্থ ব্যাংক হিসাবে দ্রুত প্রেরণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান । দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণকে আগামী ২৭.১১.২০২০ খ্রি . তারিখের মধ্যে জরুরি ভিত্তিতে MIS- এ তথ্য সংশােধনের প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরােধ করা হলাে ।

৩।উল্লেখ্য , যথাসময়ে Bounced Back কৃত তথ্য সংশোধন না করার ফলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ দায়ী থাকবেন ।

মাদরাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য সংশোধন ও সংযোজন এর লিংক

Scholarship MIS URL: http://hspbd.com/HSP-MIS/login

কোন তথ্য ভুল থাকলে বৃত্তির অর্থ পাঠানো সম্ভব হবে না। তাই সঠিক তথ্যই পারে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তির অর্থ প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে। এ ব্যাপারে প্রতিষ্ঠান প্রধানগণকে আরো আন্তরিক হওয়ার অনুরোধ করেছে অধিদপ্তর।

অধিদপ্তর থেকে সময় বাড়ানোর বিষয়টি জানিয়ে চিঠি সব মাদরাসার অধ্যক্ষ বা সুপারকে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে সব নিম্নমাধ্যমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক, কলেজগুলোর অধ্যক্ষ, সব বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এবং সব মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। মাঠ পর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের চিঠি পাঠিয়েও বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এ সময়ের পরেও শিক্ষার্থীদের বৃত্তির টাকা পেতে জটিলতা হলে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দায়ী থাকবেন বলেও হুঁশিয়ার করেছে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর। Madrasa Board Scholarship

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।