লংগদুতে পাহাড়ী কর্তৃক বাঙ্গালীর বাড়ি ঘর ভাঙ্গচুর

0 ২৮৯
ডেক্স রিপোর্টঃ
রাঙামাটি জেলার লংগদুতে সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসী কর্তৃক রাশেদ হোসেন নামে একজনের বাড়ি-ঘরে ভাংচুর, হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। গত বুধবার (১১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটায় সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা।
জানা যায়, গত বুধবার (১১ অক্টোবর) লংগদু ইউনিয়নের ভাইবোন ছড়া গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্থানীয় সুনীল চাকমা ও সমীর চাকমার নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসী দল রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাশেদ হোসেনের ঘর চারিদিক থেকে ঘেরাও করে। এ সময় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা সোলারের লাইট বন্ধ করে দিয়ে ২টি ঘর ভেঙে মাটিতে গুড়িয়ে দেয় এবং ২টি ১০০ ও ৫০ ওয়াট সোলার ব্যাটারি, ৪টি গরু- যার মূল্য ৩ লাখ টাকা, ২টি মোবাইলসহ বাড়িতে রাখা ট্রাংক ভেঙ্গে সোনাসহ টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় বাঁধা দিতে চাইলে পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা রাশেদ হোসেন এর উপর হামলা করে এবং গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে হুমকি প্রদান করে।
ভিকটিম রাশেদ হোসেন লংগদু ইউনিয়নের ভাইবোন ছড়া গ্রামের গফুর মিয়ার ছেলে। এদিকে, এ ঘটনার খবর পেয়ে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও এপিবিএনের টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
অপরদিকে, সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের এমন ন্যাক্কারজনক হামলার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। নিজ ভূমি থেকে রাশেদকে উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র অবিলম্বে বন্ধ করা এবং ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের যথাযথ ক্ষতিপূরণসহ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য, উক্ত জায়গাটি নিয়ে গত ২০১৬ সালে সুনীল কুমার চাকমার নামে মামলা হয়। ঐ বছরই কাগজপত্র মূলে রাশেদের বাবা গফুরের পক্ষে রায় আসে।

ঘটনা স্থলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে লংগদু জোন থেকে সেনাবাহিনীর একটি টিম ও এপিবিএন পুলিশ এবং লংগদু থানা পুলিশ পুরো এলাকা নিরাপত্তা জোড়দার করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানাযায়।

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ইকবাল উদ্দীন বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সাথে সাথে আমাদের পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়েছে,বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।