সাংসদ নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে ইসির মামলা

0 ৬৬
ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে আচরণবিধি ভঙ্গ, অশালীন ব্যবহার ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগে ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ মজিবুর রহমান চৌধুরীর (নিক্সন) বিরুদ্ধে মামলা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইসির পক্ষে উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নওয়াবুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি মামলাটি করেন চরভদ্রাসন থানায়।

মামলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা-২০১৩ ও উপজেলা পরিষদ (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা-২০১৬ বিধি অনুযায়ী নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে মামলার এজাহারে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

একজন সংসদ সদস্য হওয়া সত্ত্বেও নির্বাচনী এলাকায় উপস্থিত থেকে নির্বাচনের প্রচারণা ও কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে এবং নির্বাচনী দায়িত্ব এবং সরকারি কর্তব্য পালনরত কর্মকর্তাদের হুমকি, গালাগাল ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে নিক্সন চৌধুরী নির্বাচনী বিধিমালা লঙ্ঘন করেছেন বলে ওই এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফরিদপুরের জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নওয়াবুল ইসলাম আজ বৃহস্পতিবার সকালে চরভদ্রাসন থানায় মামলা করেন।

জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম বলেন, প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত নির্দেশনা অনুযায়ী এ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চরভদ্রাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজনীন খানম সাংসদ নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের এজাহার দাখিলের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শেষে মামলাটি দায়ের করা হবে।

গত ১০ অক্টোবর নির্বাচন-পরবর্তী বিজয় সমাবেশে জেলা প্রশাসক (ডিসি) অতুল সরকারকে হুমকি দেওয়াসহ চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) ফোনে ফোন করে গালাগাল করেন ভাঙ্গা উপজেলার সহকারী কমিশনারকে (ভূমি)। চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ দুটি ঘটনা ঘটে।

এ দুটি ঘটনার ভিডিও এবং অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী বিষয়টি ভাইরাল হয়ে পড়ে।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) অতুল সরকার ওই ঘটনা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে জানালে সেটি নির্বাচন কমিশনে পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

তবে ডিসি ও ইউএনওকে গালাগালের যে অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়েছে, সেটি বানোয়াট বলে দাবি করেছেন সাংসদ নিক্সন চৌধুরী। গত মঙ্গলবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে তিনি দাবি করেন, তাঁর বক্তব্যকে ‘সুপার এডিট’ করা হয়েছে। তিনি গালাগাল করেননি।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।