সরকারের সহায়ক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে স্বপ্নবুনন সংগঠণ- ফিরোজা বেগম চিনু

0 ৯৩
বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে রাঙ্গামাটি জেলা জুড়ে স্বপ্নবুননের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন, স্বপ্নবুনন এর ৩য় বর্ষে পদার্পণ ও ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে রাঙ্গামাটি জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সারা দিনব্যাপি বিভিন্ন কার্যক্রম পালন করা হয়।
প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে স্বপ্নবুনন রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা শাখা কর্তৃক কেক কেটে ও ২০,০০০ টাকা শিক্ষা বৃত্তি প্রদান, বরকল উপজেলা শাখা কেক কাটা, মাস্ক বিতরণও সচেতনতামূলক কার্যক্রম, কাউখালি উপজেলা শাখা কেক কাটা ও তিন ধর্মীয় সম্প্রদায় গুরুদের মাঝে ধর্মীয় গ্রস্থ উপহার প্রদান, নানিয়ারচর উপজেলা শাখা কেক কাটা ও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম, লংগদু উপজেলা শাখা কেক কাটা, দুঃস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ, বাঘাইছড়ি উপজেলা সমন্বয় শাখা কেক কাটা, মাস্ক বিতরন ও জন সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ, রাজস্থলী উপজেলা শাখা কেক কাটা ও মাস্ক বিতরণ ও জন সাধারণ এর মাঝে করোনা সচেতনতা বৃদ্ধি কর্মসূচি, জুরাছড়ি উপজেলা শাখা মাস্ক বিতরণ কর্মসূচি গ্রহণ, কাপ্তাই উপজেলা শাখা শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রম গ্রহণ, বিলাইছড়ি উপজেলা শাখা কেক কাটা, মাস্ক বিতরণ, বৃক্ষরোপন কার্যক্রম পরিচালনা করে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনকরেন।
কেন্দ্রীয়ও সদর উপজেলা শাখা কর্তৃক আয়োজিত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনের অনুষ্ঠানে প্রধানঅতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ৩৩৩ মহিলা সংসদীয় আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু বিবাহ নিবন্ধক ও সমাজ সেবক খোকন কুমার দে, উদ্যোক্তা ও সংগঠক বাদশা ফয়সাল, স্বপ্নবুনন পরিচালক নাজিমুল ইসলাম সেতু, হৃদয়ে বাঘাইছড়ি সংগঠন এর প্রতিষ্ঠাতা মাহমুদুল হাসান সোহাগ।
ছালেহ আহমেদ ও মেহেরিন নিগার রিমির যৌথ সঞ্চালনায় স্বপ্নবুনন’র প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মুন্না তালুকদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্য ফিরোজা বেগম চিনু বলেন “পাহাড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলে দশ উপজেলায় ছড়িয়ে যাওয়া স্বপ্নবুনন সরকারের সহায়ক শক্তি হিসেবে পার্বত্য অঞ্চল জুড়ে দেশ উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। তরুণদের এই স্বপ্নযাত্রা যেন চলমান থাকে এই প্রত্যাশা থাকবে, সমাজের বিভিন্ন উন্নয়ন এর পাশাপাশি নারী উন্নয়নে আরো জোরালো ভাবে স্বপ্নবুনন কাজ করে যাবে এই প্রত্যাশা রইল, স্বপ্নবুনন এর সাথে সক্রিয় ভাবে কাজ করে আমি তাদের দেশ উন্নয়ন কার্যক্রম এর অংশীদার হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করছি”।
আলোচনা সভার সমাপ্তি ঘোষণাকালে সভাপতির বক্তব্য মুন্না তালুকদার বলেন” স্বপ্নবুনন এখন রাঙ্গামাটির দশ উপজেলা জুড়ে বিস্তৃত। পার্বত্য অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবী ও সামাজিক অংগঠনে যা অনুকরণীয় একটি দৃষ্টান্ত। এতদূর আসার পিছনে অনুপ্রেরণা হিসেবে ছিলেন সকল স্বেচ্ছাসেবী, শুভানুধ্যায়ী, শুভাকাঙ্খীগণ।
স্বপ্নবুনন এর সাফল্যের ধারা বহমান রেখে ২০২১ বর্ষে নারী, শিশু, শিক্ষা উন্নয়নে দশ উপজেলায় জোর ভূমিকা রাখবে স্বপ্নবুনন”। বঙ্গবন্ধু কুইজ উদ্ভোধন ঘোষণা করে আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি শিক্ষামূলক প্রতিষ্ঠান ই-স্টাডি ইনষ্টিটিউর এর পক্ষে ২০,০০০ টাকার চেক ও শিক্ষা বৃত্তিপত্র হস্তান্তর, স্বপ্নবুনন এর টিম “নারী” ঘোষণাও সদর উপজেলা কমিটি আনুষ্ঠানিক ভাবে দায়িত্ব প্রাপ্তদের হস্তান্তর করেন

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।