লংগদুতে প্রতিপক্ষের হামলায় জেএসএস (সংস্কার) এক সদস্য গুলিবিদ্ধ

0 ৭১

। আলোকিত লংগদু ডেক্স।
রাঙামাটির লংগদু উপজেলা সদরে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস-লারমা) সংস্কার গ্রুপের সুজয় চাকমা (২৩) নামে এক সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন। উপজেলা সদরে জেএসএস কার্যালয়ে (বর্তমান সংস্কারের দখলে) পাশে গোডাউন কোয়াটারে ( মঙ্গবার ১৫ জুলাই) মধ্যরাত দেড়টার সময় এঘটনা ঘটেছে। আহতকে প্রথমে লংগদু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে প্রাথমিক চিকিৎসার শেষে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহত সুজয় চাকমা উপজেলার লংগদু সদর ইউনিয়নের দোজরপাড়া এলাকার রাঙ্গাধন চাকমার ছেলে।
সুজয় চাকমা জেএসএস সংস্কারের থানা কমিটির একজন সদস্য বলে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানায়। এঘটনায় উপজেলা সদরে সাধারণ পাহাড়িদের মধ্যে চাপা আতংকিত হয়ে পড়ে। আজ বুধবার ভোর রাতে লংগদু জোনের সেনাবাহিনী সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
জনসংহতি সমিতি (লারমা) সংস্কার দলের লংগদু উপজেলা শাখার সভাপতি অলঙ্গ চাকমা জানায়, গতকাল মধ্যরাতে(সন্তু) গ্রুপ ও ইউপিডিএফ গ্রুপের লোকজন যোগসাজসে অস্ত্র নিয়ে এসে আমাদের উপর হামলা করেছে। আমি একরুমে তখন ঘুমাচ্ছিলাম। অন্যএকটি রুমে আমাদের এক সদস্য সুজয় চাকমা ও তার সাথে বাবুল চাকমা ও পুতুল চাকমাও ঘুমাচ্ছিল। এসময় অস্ত্রধারীরা প্রথমে সুজয় চাকমাকে ডেকে তোলে সে দরজা খোলা মাত্র তাকে গুলি করলে তখন দ্রুত দরজা বন্ধ করে দেয়। এদিকে অস্ত্রধারীরা আমাকে বাহির থেকে তালা দিয়ে দরজা আটকে দেয় এবং বাহিরে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরানোর চেষ্ঠা করে। পরে তারা পালিয়ে যায়। এই ঘটনার পর বাবুল চাকমা ও পুতুল চাকমাকে আর দেখা যায়নি। এই ধরনের হামলার জন্য আমরা নিন্দা জানাই।
তবে জেএসএস (সন্তু) দলের লংগদু উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মনিশংকর চাকমা অভিযোগটি অস্বীকার করেছেন।এটা তারা নিজেরাই নাটক সাজিয়ে আমাদের উপর দোস ছাপাতে চাচ্ছে। এটা মূলত তারা চাঁদার ভাগ নিয়ে নিজেদের মধ্যে দ্ব›দ্ব তৈরী হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে এব্যাপারে মস্তব্যের জন্য ইউপিডিএফ এর পক্ষ থেকে কাওকে পাওয়া যায়নি।
লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ মোহাম্মদ নুর জানান, গতকাল মধ্যরাতে জেএসএস সংস্কারের এক সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছে এবং তাকে চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি নেওয়া হয়েছে শুনেছি। তবে এনিয়ে এখনও পর্যন্ত কোন পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করেনি।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।