লংগদুতে কোথায় কখন পবিত্র ঈদুল আজাহার জামাত অনুষ্ঠিত হবে

0 ৮০

।। সাকিব আলম মামুন ।।
করোনা পরিস্থিতিতে আগামীকাল সারা দেশে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। এ উপলক্ষ্যে প্রতি বছরের ন্যায় রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় প্রায় সকল মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
এরই ধারাবাহিকতায় লংগদু উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কোন মসজিদে কখন পব্ত্রি ঈদুল আজাহার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে তা তুলে ধরা হল- বিভিন্ন জামে মসজিদের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বরত ইমাম সাহেবগণের সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, মাইনীমূখ বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ঈদুল আজাহার ১ম জামাত ৭.৪৫ মিনিটে এবং ২য় জামাত ৮.১৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে। লংগদু উপজেলা সদর জামে মসজিদে ৭.৩০ মিনিটে, বাইট্টাপাড়া বাজার জামে মসজিদে ৭.৩০ মিনিটে, মুসলিমব্লক জামে মসজিদে ১ম জামাত ৭ টায় এবং ২য় জামাত ৮টায়, গাথাছড়া বায়তুশ শরফ জামে মসজিদে ১ম জামাত ৭.৩০ এবং ২য় জামাত ৮ টায়, গুলশাখালী বাজার জামে মসজিদে সকাল ৭ টায় ও ২য় জামাত ৮ ঘটিকায়, বৈরাগী বাজার জামে মসজিদে ৮ টায়, করল্যাছড়ি বাজার জামে মসজিদে ৭.৩০ মিনিটে, কালাপাকুজ্যা গুচ্ছ শিবির জামে মসজিদে ৮ টায়, ভাসান্যদম-খাগড়াছড়ি বাজার জামে মসজিদে ৮ টায়, গাউসপুর বাজার জামে মসজিদে ৭.৩০ মিনিটে এবং পশ্চিম জারুল বাগান জামে মসজিদে ৮ ঘটিকায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর প্রেক্ষাপটে ঈদুল ফিতরের মতো ঈদুল আজহার নামাজের জামাতও খোলা জায়গার পরিবর্তে কাছের মসজিদে আদায়ের আহ্বান জানিয়েছেন সরকার।
ঈদের নামাজের জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণু নাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিরা নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন। প্রত্যেককে অজু করে মসজিদে আসতে হবে। এবং অজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। করোনা সংক্রমণ রোধ নিশ্চিত করতে মসজিদে অজুর স্থানে সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে এবং মসজিদে প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে।
ঈদের নামাজের জামাতে আগত মুসল্লিদের অবশ্যই মাস্ক পরে আসতে হবে এবং অধিকতর কোলাকোলি ও মোলাকাত থেকে বিরত থাকতে হবে।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।