ফেসবুকে মিথ্যা তথ্য প্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

alokitolangadu@gmail.com

0 ৭৪

 

।।মো.গোলামুর রহমান।।

রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় মাইনীমুখ ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার আব্দুল মতিনের বিরুদ্ধে চাচা এবং ফুফাকে মারধর করেছে বলে ফেসবুকে একে আজাদ নামে একটি আইডি থেকে মিথ্যা অপপ্রচার করা হয়।

এর প্রতিবাদে শুক্রবার (৭ জুলাই) সকাল ১০টায় নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন আব্দুল মতিন ও তার পরিবার।

সোশ্যাল মিডিয়াতে মিথ্যা প্রচারের ফলে আব্দুল মতিন মেম্বার ও মতিন মেম্বারের ইউনিয়ন পরিষদের মানহানি হয় বলে দাবী করেন আব্দুল মতিন।মতিন মেম্বার জানান, আমার ফুফা মোশারফ আমার দাদার নামীয় স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি আমার চাচাদের নামে আমার বাবার থেকে কাগজে ওয়ারিশ সুত্রের প্রাপ্ত অংশ খরিদের ব্যপারে মিথ্যা প্রপোজাল দিয়ে সকল সম্পত্তির স্বাক্ষর নিতে আমাদের বাড়িতে আসে,পরে যখন আমি কাগজ পড়ে বুঝতে পারি এইসব জালিয়াতি কাগজ তখন তাদেরকে জিজ্ঞেস করি যে আমার সকল সম্পত্তি আপনারা লিখে নিচ্ছেন কেনো এই কাগজে আমর বাবা কেন সাক্ষর করবে, একথা জানতে চাইলে আমার ফুফা মোশারফ লজ্জিত হয়ে এখান থেকে স্থান ত্যাগ করে চলে যায়,চলে যাওয়ার পরে বিভিন্ন মাধ্যমে জানতে পারি তারা হাসপাতালে ভর্তি হয় এবং আমাদের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ করে।

এছাড়াও এখান থেকে গিয়ে তার ছেলে এবং তারা আমার নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একে আজাদ নামে একটি আইডি থেকে মিথ্যা বানোয়াট প্রপাকান্ড ছড়ানোর মাধ্যমে আমার এবং আমার পরিবারের সম্মান হানিকর প্রচারনা চালায়। যা আমার মান সম্মানে ব্যাপক ভাবে আঘাত লেগেছে। আমি এহেন কর্মকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানোর পাশাপাশি প্রশাসনের নিকট তদন্ত পূর্বক সুষ্ঠ বিচারের দাবি জানাই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চেয়ারম্যান আগামী রবিবার সমাধানের জন্য বসার সময় নির্ধারণ করবে, সেটা হলো জমিজমা নিয়ে মিমাংসার বিষয়। আজ সংবাদিক সম্মেলন হচ্ছে ফেসবুকে আমার এবং আমার পরিবারকে নিয়ে যে যে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে তার প্রতিবাদ এবং সুষ্ঠু বিচারের দাবীতে।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।