পার্বত্য চট্টগ্রামে নিরাপত্তা বাহিনীর সেবায় সুস্থতা ভোগ করছে পাহাড়ের সাধারণ জনগন।

0 ১৭৯

ডেস্ক রিপোর্টঃ
প্রত্যন্ত অঞ্চলের ডায়রিয়ায় আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীদের চিকিৎসায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বিমান বাহিনী, বিজিবি এবং বেসামরিক প্রশাসনের যৌথ দল কর্তৃক মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন পরিচালনা*

সদর দপ্তর, ২৪ পদাতিক ডিভিশনের সম্মানিত জিওসি মহোদয়ের সদয় সম্মতিক্রমে খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে অদ্য ০৮ জুন ২০২৩ তারিখ আনুমানিক ১৩৩০ ঘটিকায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি মেডিক্যাল দল, অসামরিক প্রশাসনের ০২ জন স্বাস্থকর্মী, প্রয়োজনীয় ঔষধ, শুকনা খাবার এবং বিশুদ্ধ খাবার পানিসহ বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার যোগে রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের দুর্গম শিয়ালদহে মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন পরিচালনার জন্য গমন করে।

উল্লেখ্য যে, লংথিয়ান পাড়া, অরুন কার্বারী পাড়া এবং শিয়ালদহসহ আশেপাশের কিছু এলাকায় বিগত কয়েকদিন যাবত ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ০২ জন মৃত্যুবরণ করেছে বলে তথ্য পাওয়া গিয়েছে। গতকাল রাতে রাঙামাটি জেলার জেলা প্রশাসক কর্তৃক খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার এর কাছে এই ব্যাপারে সহায়তা চাওয়া হলে তৎক্ষণাৎ ৬ ইবি তথা বাঘাইহাট জোন এর একটি টহল দল প্রয়োজনীয় ডাক্তার এবং ঔষধ সামগ্রী সহ পায়ে হেটে প্রত্যন্ত অঞ্চলের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

এছাড়া ৫৪ বিজিবির ডাক্তারসহ ১টি দল পায়ে হেটে শিয়ালদহ বিওপির দূরবর্তী লংথিয়ান পাড়া ও ৫ ফিল্ড এ্যাম্বুলেন্সের ডাক্তারসহ একটি দল, বেসমরিক প্রশাসনের ২ জন স্বাস্থকর্মী হেলিকোপটার যোগে শিয়ালদহ এলাকার উদ্দেশ্যে গমন করে। মেডিকেল দলগুলো লংথিয়ান পাড়া,অরুণ কার্বারি পাড়া ও শিয়ালদহ এলাকায় আনুমানিক ৩৫০-৪০০ জন মুমূর্ষ রোগী ও ডায়রিয়ায় আক্রান্তের মাঝে ঔষধ, স্যালাইন, শুকনো খাবার এবং বিশুদ্ধ খাবার পানি বিতরণ করেছে। আর্তমানবতার সেবায় বেসামরিক প্রশাসনের সমন্বয়ে বাংলাদেশ সেনাবহিনী, বিমান বাহিনী ও বিজিবির এই মেডিকেল ক্যাম্পেইন ও মানবিক চিকিৎসা কার্যক্রম ভবিষ্যতেও চলমান থাকবে।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।