ঐতিহ্যবাহী বান্দরবান রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের বুদ্ধমূর্তির বয়স ৮শত বছরেরও অধিক

0 ৭২

উথোয়াইচিং মারমা ;(বান্দরবান)  

বান্দরবান শহরের প্রাণকেন্দ্রে  অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী ‘রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের’ (খ্যং ওয়া ক্যং) -এর সকল জল্পনা-কল্পনা অবসান ঘটিয়ে বুদ্ধ মূর্তির বয়স অবশেষে নির্ধারণ করেছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর।

বুধবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে পার্বত্য জেলা পরিষদে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্য‌মে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের পাঠানো এক চিঠির তথ্যের ভিত্তিতে এই তথ্য জানান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈহ্লা মারমা।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জানান, এই বুদ্ধ মূর্তিটি আনুমানিক খ্রিস্টীয় ১২ থেকে ১৫ শতকের মধ্যে নির্মিত হয়েছে। পিতল দিয়ে তৈরির মূর্তিটির নির্মাণ আনুমানিক ৫.৫ শত থেকে ৮ শত বছর আগে হয়ে থাকতে পারে।
বুদ্ধ মূর্তি সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা প্রসঙ্গে আলোচনাকালে  চেয়ারম্যান বলেন, জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পার্বত্য মন্ত্রণালয়, সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়, বান্দরবান জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার অবহিত করা হবে।

সূত্রে জানা গে‌ছে, রাজগুরু বুদ্ধ বিহারে বুদ্ধমূর্তিটি পাশ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারের আরাকান রাজ্য থেকে তৎকালীন আমলে বান্দরবানে আনা হয়। ওই সময় ৯ম বোমাং সার্কেলের রাজা সানাইঞো এই বুদ্ধমূর্তিটি রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে সংরক্ষণ করেন।
এসময়, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কে এস মং বলেন, ঐহিত্যবাহী ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে হাজার বছরে পুরানো আসাংম্রাই ফরাহ্ (বুদ্ধ মূর্তি) কে ভক্তরা পূজা করে এসেছেন। সেটি বয়স নির্ধারণ করতে পারা বান্দরবানবাসী জন্য বিরাট পাওনা। দীর্ঘদিন ধরে পুরানো মূর্তি সংরক্ষণ করতে পেরেছে। এটি রাষ্ট্রে ও বান্দরবাসীর জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয় বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

প্রসঙ্গত, এই বুদ্ধমূর্তিরটির বয়স নির্ধারণ করতে গত (১৫ আগস্ট) চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমানের নেতৃত্ত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের বুদ্ধ মূর্তি বয়স নির্ধারন করতে গবেষণা শুরু  করেন এবং তিন ঘণ্টা ব্যাপী পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন।
পরে প্রায় ১২ থেকে ১৫ শতকে নির্মিত এ বুদ্ধ মূর্তির বয়স প্রায় ৮ শত বছর বয়স হয়েছে এমন তথ্য জা‌নি‌য়ে‌ছেন দেশের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের প্রত্নতত্ত্ব সংরক্ষন শাখা।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।