এখন থেকে গুলশাখালীবাসীরা পেল বিদ্যুৎ সুবিধা -দীপংকর তালুকদার এমপি

৮২

। ও, এফ, মুছা।

খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাংসদ দীপংকর তালুকদার এমপি বলেছেন, আওয়ামীলীগ কথা ও কাজে বিশ্বাসী। আমরা যে কথা দিয়ে থাকি সেটা বাস্তবায়ন করি। আমি এমপি হয়ে আসার পর এই গুলশাখালীতে স্কুল, কলেজ, রাস্তা, ব্রিজ ও কালভার্ট নির্মাণে যতটুকু সাহায্যের সামর্থ ছিল করেছি। গুলশাখালী উন্নয়ের পথে এগিয়ে গেলেও উন্নয়নের প্রধান শর্ত বিদ্যুৎ ছিলো না। সে বিদ্যুতের দাবীও আমরা পুরণ করেছি। এখন থেকে গুলশাখালীবাসী বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে। প্রধান মন্ত্রীর উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ এই শ্লোগ বাস্তবায়নের লক্ষে ধাপে ধাপে লংগদু উপজেলার সকল এলাকাকে বিদ্যুতের আওতায় আনা হবে।
সোমবার (২৭সেপ্টেম্বর), রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় বিদ্যুৎ বাস্তবায়ন প্রকল্পের আওতায় গুলশাখালী ইউনিয়নে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রকল্পটির শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে গুলশাখালী হাই স্কুলের মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার এমপি এসব কথা বলেছেন।
লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার এর সভাপতিত্বে ও গুলশাখালী আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানা এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রাজনগর বিজিবি জোনের ভারপ্রাপ্ত জোন কমান্ডার মেজুর মোঃ নুরুল ইসলাম খান পিএসসি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাইনুল আবেদীন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুর রহীম, সদস্য আছমা বেগম, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য হাজী মোঃ কামাল উদ্দিন, লংগদু থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আরিফুল আমিন, তিন পার্বত্য জেলার বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্প,রাঙামাটি, নির্বাহী প্রকৌশলী-১ প্রৌকঃ মোঃ সাইদুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, গুলশাখালী আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম। এসময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সিরাজুলা ইসলাম ঝান্টু, গুলশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু নাছির, বগাচতর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশীদ, ভাসাইন্যাদম ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী, কালাপাকুজ্জা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা মিয়া উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার এমপি আরো বলেন, আমাদের দেশে সমালোচক আর নিন্দুকের অভাব নেই। কিন্ত বাস্তব হচ্ছে গুলশাখালীতে বিদ্যুৎ এসেছে এটাই সত্য। তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে বিদ্যুতায়নের ১৬৫ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের পর মাননীয় প্রধান মন্ত্রী পরের দাপে বরাদ্দ করেন ৫৪৫ কোটি টাকা। বর্তমানে ১হাজার ৭শত কোটি টাকার বিদ্যুৎয়াতনের উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। আশাকরি এটি একনেকে অনুমোধন পেলে এই এলাকায় একটি সাবস্টেশন সহ পূর্ণাঙ্গ বিদ্যুতায়িত করা হবে। এই উপজেলার অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ এখনও যায়নি। আশাকরি তৃতীয় ধাপে সে সব এলাকায় বিদ্যুৎ যাবে। আমরা মানুষকে স্বপ্ন দেখাই এবং স্বপ্ন দেখি। আমরা ঘুমের ঘরে যে স্বপ্ন দেখি সেটি কোন স্বপ্ন নয়। স্বপ্ন হচ্ছে সেটাই যে স্বপ্ন বাস্তবে ঘুমাতে দেয় না।
শেষে গুলশাখালীর চৌমুহনী বাজারের পাশে প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার এমপি আনুষ্ঠাকিভাবে বিদ্যুতের সুইচ অন করে গুলশাখালীতে বিদ্যুৎ সংযোগ শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় বিশেষ অতিথিগন সহ এলাকাবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।