ইউএনও ওয়াহিদার অবস্থা সংকটাপন্ন

0 ৫১
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম (ফাইল ফটো)

দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হওয়া দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের অবস্থা সংকটাপন্ন। এ কারণে আপাতত তার শরীরে অস্ত্রোপচার করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নিউরো সায়েন্স হাসপাতালের পরিচালক ডা. দীন মোহাম্মদ গণমাধ্যমকে এ তথ‌্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ইউএনওর মাথায় আঘাত করায় তার অবস্থা খুবই গুরুতর। তার মস্তিষ্কে আঘাত লেগেছে। এ কারণে আপাতত অস্ত্রোপচার না করে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে। তার সুষ্ঠু চিকিৎসার জন্য সাত সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চলবে তার চিকিৎসা। দুপুরে বিমানবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে করে ওয়াহিদা খানমকে রাজধানীর নিউরো সায়েন্স হাসপাতাল আনা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে ঘোড়াঘাট উপজেলার সরকারি বাংলোতে হামলার শিকার হন ওয়াহিদা খানম। হামলার পর প্রথমে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়।

ইউএনওর ওপর হামলার সংবাদ পেয়ে দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) শিবলী সাদিক, জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাহমুদুল আলম ও পুলিশ সুপার (এসপি) আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের মুখোশ দ্রুত উন্মোচন হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ইউএনওর বাসভবনে সিসিটিভি ক্যামেরা ছিল। হামলায় জড়িত যে দুই দুর্বৃত্তের মুখে মুখোশ ছিল, সেগুলো সিসিটিভি ক্যামেরা দেখে পর্যালোচনা চলছে। সেখানে পুলিশের একটি টিম কাজ করছে। তারা আশাবাদী যে, খুব দ্রুত আমাদের জানাতে পারবেন-কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা অপেক্ষা করছি।  আশা করছি  ইউএনওর ওপর হামলায় কারা জড়িত দ্রুত জানতে পারবো।’

যারাই জড়িত থাকুক, কেউ ছাড় পাবে না। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ব‌্যবস্থা নেবে, বলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

আপনার ইমেইল প্রদর্শন করা হবে না।