লংগদুতে সন্ত্রাসীদের হামলায় ৩ বাঙালী কাঠুরিয়া আহত

৬৮

গোলামুর রহমান

রাঙামাটির লংগদু উপজেলার ভাসান্যাদম ইউনিয়নের চাইল্যাতলী এলাকায় উপজাতি সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলার স্বীকার হয়ে ৩ বাঙালি কাঠুরিয়া গুরুতর আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

৩ আগস্ট মঙ্গলবার বিকাল আনুমানিক ৪.৩০ টায় চাইল্যাতলী এলাকার বিমল কার্বারীর বাড়ির ঘাটে এ হামলার স্বীকার হয় ওই তিন বাঙালী কাঠুরিয়া।

হামলায় আহতরা হলেন ১.ফয়েজ উদ্দিন(৫০) পিতা-আলীম উদ্দিন ২. নুুুুরুন্নবী সুজন (২২) পিতা – ফয়েজ উদ্দিন, ৩.শওকত হোসেন (১৯)পিতা-ইদ্রিস আলী, এদের মধ্যে ফয়েজ উদ্দিন ও নুরুন্নবী গুরুতর আহত হওয়ায় আজ বুধবার সকালে লংগদু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাদেরকে ভর্তি করা হয়।
আহত ফয়েজ উদ্দিন এপ্রতিবেদকে বলেন, আমরা নিজস্ব পাহাড়ে বাঁশ কেটে বিকালে আনুমানিক ৪.৩০টার সময় বাড়িতে ফিরে আসার পথে বিমল কার্বারীর বাড়ির ঘাটে আসলে ৮/১০ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী (তারা সকলেই উপজাতি) বন্দুক ও লাঠিসোঁটা নিয়ে আমাদের ঘিরে ফেলে। এরপর কিছু বলার আগেই তার আমাদের এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে মারাত্মক আহত করে। হামলার এক পর্যায়ে দৌড়ে পালিয়ে আসতে সক্ষম হই। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাড়ি আসতে আমাদের সন্ধ্যা হয়ে যায় তাই রাতে আর হাসপাতালে আসতে পারিনি, ওখানেই প্রাথমিক চিকিৎসা নেই। আজ সকালে হাসপাতালে এসে ভর্তি হই। অভিযোগে তারা জানায় আমরা নিয়মিত পাহাড় থেকে গাছ, বাঁশ কেটে কোন মতে সংসার চালাই। সন্ত্রাসীরা আমাদের কাছ থেকে চাঁদা না পেয়ে এই হামলা করেছে।
এব্যাপারে ভাসাইন্যাদম ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী এর কাছে এব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের নিকট হামলার শিকার হওয়া তিন ব্যাক্তি আমার কাছে এসেছিল। তাদের শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন দেখেছি । যেভাবে সন্ত্রাসীরা তাদের মেরেছে এটা খুবই নিন্দনীয় কাজ।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।