লংগদুতে “পাহাড়ের সংবাদপত্র ও প্রকাশনা সমাচার” বইয়ের প্রকাশনা উৎসব ও এ,কে এম মকছুদ আহমেদকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান

৭১

।। সাকিব আলম মামুন।।
পাহাড়ের উন্নয়ন ও স্থায়ী শান্তি আনায়নে প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের আওতায় এনে পার্বত্য তিন জেলাকে ৭ টি জেলায় বিভক্ত করে পার্বত্য চট্টগ্রামকে নতুন বিভাগ করার ঘোষণার দাবী জানানো হয়েছে। রবিবার রাঙ্গামাটির লংগদুতে “পাহাড়ের সংবাদপত্র ও প্রকাশনা সমাচার” বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এ দাবী জানান।
অনুষ্ঠানে পাহাড়ের চারণ সাংবাদিক রাঙ্গামাটির দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক এ,কে এম মকছুদ আহমেদের সাংবাদিকতার ৫০ বছর পূর্তিতে উপজেলা প্রশাসন ও লংগদু প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করে।
রবিবার সকাল ১১ টায় লংগদু উপজেলা পরিষদের মিলনায়তন লংগদু প্রেস ক্লাব ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাইনুল আবেদীন এর সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক আরমান খান এর সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার।
অনুষ্টানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুল ইসলাম আমিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ঝান্টু চৌধুরী, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক রাঙামাটির সম্পাদক আনোয়ার আল হক, লংগদু সরকারি মডেল কলেজ এর অধ্যক্ষ মোঃ শহীদুল্লাহ কায়সার, লংগদু প্রেস ক্লাব এর সভাপতি মোঃ এখলাস মিঞা খান, আটাড়কছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমা, গুলশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু নাছির, গাঁথাছড়া বায়তুশ শরফের সুপার মাওলানা ফোরকান আহমেদ, রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল করিম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহনেয়াজ ফারুক, ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক মুছা, তরুণ সমাজসেবক এ.বি.এস মামুন উপস্থিত ছিলেন।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন লংগদু প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ এখলাস মিঞ খান।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার বলেন, অনেক বছর আগে থেকে আমি এই চারণ সাংবাদিক দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক এ কে এম মকছুদ আহমেদ এর কথা শুনে আসছি। যিনি পার্বত্যঞ্চলে প্রতিকূল পরিবেশে সাংবাদিকতার গোড়া পত্তন সূচনা করেন। তিনি বলেন, সংঘাত বিক্ষুব্ধ পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে পাহাড়ের উন্নয়নে মকছুদ আহমেদকে সাংবাদিকতায় অসামান্য ভূমিকা রেখেছেন যা ইতিহাসে স্মরনীয় হয়ে থাকবে। তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ এই পথ চলায় তিনি সত্য প্রকাশ হতে কখনো নিজেকে বিরত রাখেন নাই। তিনি ছিলেন এই অঞ্চলের সাংবাদিকতার বাতি ঘর। তাঁর আর্দশকে ধারণ করে এই অঞ্চলে অনেকে সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়েছেন। তার অবদান কখনোই ভুলার মত নয়।
সভাপতির বক্তব্যে লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাইনুল আবেদীন বলেন, একজন গুণী ব্যক্তিকে সম্মান করা মানে নিজেরাই সম্মানিত হওয়া। লংগদ প্রেস ক্লাব আজকের দিনে উনাকে সংবর্ধনা দিয়েই যে মহৎ কাজটি করেছেন, ভবিষ্যৎতেও অনেকে এই পেশাতে এগিয়ে আসবেন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত গুণীজন চারণ সাংবাদিক দৈনিক গিরিদর্পনের সম্পাদক এ কে এম মকছুদ আহমেদ বলেন, আজ হতে ৫০ বছর আগে যখন আমি এই অঞ্চলে সাংবাদিকতা শুরু করি তখন আজকের মতো তথ্য প্রযুক্তি উন্নত ছিলো না। ছিলো না কোন ইন্টারনেট সংযোগ। মাইলের পর মাইল হেঁটে আমি সংবাদ সংগ্রহ করেছি, যাহা সত্য তাহা প্রকাশ করেছি নিঃসংকোচে। কখনোই কারো বিরুদ্ধে অপসাংবাদিকতায় লিপ্ত হয় নাই। সত্য এবং সাহসিকতার সাথে এই পেশায় কাজ করে গিয়েছি। কারোর কাছে মাথা নত করি নাই। জীবনে অনেক ঘাত প্রতিঘাত পেরিয়ে আজ ৫০ বছরে উপনিত হয়েছি।
সংবর্ধনা সভায় রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাব সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল বলেন, আমরা যারা সাংবাদিকতার পেশায় যুক্ত হয়েছি সকলেই মকছুদ ভাই এর আর্দশকে অনুসরণ করেই কাজ করে চলছি। তিনি সত্য প্রকাশে কখনোও নিজেকে বিরত রাখেন নাই। বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশ করাই ছিল তার কাজ।
রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক দৈনিক রাঙ্গামাটির সম্পাদক আনোয়ারুল হক বলেন, এ কে এম মকছুদ আহমেদ আমাদের আর্দশ। তাঁর আর্দশকে ধারণ করে আজ আমরা সাংবাদিকতার মহান পেশায় যুক্ত হয়েছি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আটারকছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমা বলেন, সাংবাদিক মকছুদ আহমেদ এর মতো সংবাদকর্মী আছে বলে এদেশে এখনো বস্তনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশিত হয়। মানুষ পড়তে ও জানতে পারছে সঠিক সংবাদ।
অনুষ্ঠানে লংগদু থানার ওসি আরিফুল ইসলাম বলেন, এ কে এম মকছুদ আহমেদ এর মতো সাংবাদিক জন্ম গ্রহন করেছে বলে যুগে যুগে মানুষ এই পেশাকে ভালোবেসেছেন। আমি এ কে এম মকছুদ আহমেদ এর নাম শুনেছি, আজ তাঁর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসে নিজেকে ধন্য মনে করছি। তিনি আরো বলেন, সমাজের তৃতীয় দর্পন হলো সাংবাদিক।
এছাড়াও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে রাঙামাটি, লংগদু উপজেলার বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি এবং নানা শ্রেণী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষার্ধে লেখক মাহমুদুল হাসান সোহাগ এর সম্পাদনায় “পাহাড়ের সংবাদপত্র ও প্রকাশনা সমাচার” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন সভায় উপস্থিত অতিথিগণ। পরে মকছুদ আহমেদকে লংগদু প্রেস ক্লাব ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ হতে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।