লংগদুতে জেএসএস-ইউপিডিএফ বন্দুক যুদ্ধে একজন নিহতের দাবী

৮৫

।। ও এফ মুছা ।।

রাঙামাটির লংগদু উপজেলার ছোট কাট্টলীতে আঞ্চলিক সংগঠন দুই পক্ষের গুলাগুলিতে শ্যামল চাকমা (৪৫) নামে ইউপিডিএফ (প্রসীতখীসা) গ্রুপের এক কর্মী নিহতের খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে সাড়ে ৮ আটটার দিকে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করেনি কেউ। সেনাবাহিনী ঘটনা স্থলে গেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) মুখপাত্র অংগ্য মারমা বলেন, ছোট কাট্টলীতে ইউপিডিএফের কর্মীরা অবস্থানকালে জেএসএস সন্তু গ্রুপের একটি দল হামলা করে। এতে গুলিবিদ্ধ শ্যামল চাকমা (৪৫) নামে একজন সহযোদ্ধা নিহত হয়েছে। নিহত শ্যামল চাকমা রাঙামাটির নানিয়াচর উপজেলার গবছড়ি এলাকার ফুলেশ্বর চাকমার ছেলে।
এদিকে ইউপিডিএফের জেলা সমন্বয়ক সচল চাকমা একজন নিহতের কথা স্বীকার করেছেন। নিহত শ্যামল চাকমার মরদেহ তাঁদের হেফাজতে আছে বলে জানান তিনি।

সচল চাকমা বলেন, নিহত শ্যামল চাকমা সাংগঠনিক কাজে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লংগদুর ছোট কাট্টলীতে যান সেখানে জেএসএস সদস্যরা তাঁকে গুলি করে হত্যা করে।

এ ঘটনার জন্য জেএসএসকে দায়ী করা হলেও জেএসএস রাঙামাটি জেলা ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নগেন্দ্র চাকমা বলেন, লংগদুতে জেএসএসের কোনো সাংগঠনিক কার্যক্রম নেই। জেএসএসের কোনো সশস্ত্র সংগঠন নেই।

জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) সন্তু গ্রুপের লংগদু থানার সাধারণ সম্পাদক মনিসংকর চাকমা জানান, চুক্তি বিরোধী সংগঠন ইউপিডিএফ’র প্রসীত গ্রুপের সস্ত্র লোকজন বন্ধুক ভাঙ্গা থেকে লংগদুর ছোট কাট্টলীতে আসছিলেন। ছোট কাট্টলী পাহাড়ে তারা নিজেরাই নিজেদের গ্রুপকে প্রতিপক্ষ মনে করে ব্রাশ ফায়ার করে। আধা ঘন্টা ধরে তারা গুলাগুলি করেন তবে হতাহতের খবর জানিনা। সেখানে আমাদের (জেএসএস সন্তু) কোন লোকজন ছিলো না।

লংগদু থানার ওসি (তদন্ত) সানজিদ আহমেদ জানান, গোলাগুলির ঘটনা আমরাও শুনেছি। সেনাবাহিনীর একটি দল ঘটনাস্থলের দিকে গিয়েছে। হতাহতের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গোলাগুলির ঘটনার ব্যাপারে জানতে চাইলে কাট্টলী ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাধন কুমার চাকমা জানান, ছোট কাট্টলী মোন (পাহাড়ে) এলাকায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। তবে নিহতের বিষয়টি এখনো জানিনা। শুনেছি ইউপিডিএফ গ্রুপের একজন নিহত হয়েছে। তবে সঠিক কিনা জানি না। সেনাবাহিনীর একটি টিম ঘটনাস্থলে যাবে। তাদের জন্য অপেক্ষায় আছি। ঘটনাস্থলে গেলে তবে বিস্তারিত জানতে পারবো।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।