বালিকাদের ১০০ মিটার দৌড়ে বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম স্থান লাভ করেন পানছড়ির জুনা চাকমা

৮৩

পার্বত্য অঞ্চলে উপজাতি সন্ত্রাসীরা যেখানে এই অঞ্চলকে জুম্মল্যান্ড বানানোর পাঁয়তারা করছে সেখানে পার্বত্য অঞ্চলবাসীর গর্ব জুনা চাকমা। মেয়েদের ১০০ মিটার দৌড়ে চট্টগ্রাম বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছে খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ির জুনা চাকমা। সে পানছড়ি উপজেলার ভারত সীমান্তবর্তী ঘেঁষা দুধকছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। জুনা চাকমা দুধকছড়া গ্রামের জল কুমার চাকমার মেয়ে। সে জেলা পর্যায় থেকে বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম স্থান লাভ করায় খাগড়াছড়ির সুনামকে উজ্জ্বলিত করেছে।

পানছড়ি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, আন্তঃপ্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় জুনা ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রথম হয়েছে এবং উপজেলা পর্যায়েও প্রথম স্থান অধিকার করেছে। জেলা পর্যায়ে অব্যাহত রেখে বিভাগীয় পর্যায়েও প্রথম স্থান অধিকার করে। এবার ঢাকা থেকে জাতীয় পর্যায়ে অংশ নেবেন তিনি। তার এ বিরল কৃতিত্বে উপজেলা জুড়ে বইছে আনন্দের জোয়ার। আর অন্যদিকে তাদের স্বজাতি ভাইয়েরা দেশদ্রোহী কাজে জড়িত।

দুধুকছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) দেব কুমার চাকমা বলেন, তিনি ভালো করবেন বলে আমরা সবাই আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। আমরা প্রত্যাশিত ফলাফল পেয়েছি। জুনা চাকমা বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম স্থান লাভ করায় তার পরিবার আজ গর্বিত।

পানছড়ি উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা এডিন চাকমা ও সঞ্চয়ন চাকমা বলেন, দুর্গম এলাকা থেকে বিভাগে গিয়ে প্রথম স্থান অর্জন করাটাই বিশাল ব্যাপার। নিজের উপজেলার পাশাপাশি তিনি খাগড়াছড়ি জেলাকে জাতীয় পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন তাই আমরা গর্বিত। আমরা তাকে সাধুবাদ জানাই। জুনা চাকমা এমন একটা পর্যায়ে যাওয়ায় খাগড়াছড়িবাসী আজ গর্বিত। আমরা পার্বত্য অঞ্চলবাসী তার ভবিষ্যত উজ্জ্বল কামনা করছি।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সুজিত মিত্র চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, উচ্চতর প্রশিক্ষণ পেলে আরও উন্নতি হবে। জাতীয় পর্যায়েও ভালো করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।