ঈদ আনন্দে অসহায় দুস্থ মানুষের পাশে হিলফুল ফুযুল যুব সংগঠন।

১৩১

আলোকিত লংগদু ডেস্কঃ

এসো যুবক মানবতার_কল্যাণে_কাজ_করি
#সুন্দর একটি সমাজ_গড়ি
#মানুষ_মানুষের_জন্যে
#জীবন_জীবনের_জন্যে।
পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে গরীব আসহায় দুস্থ মানুষের পাশে দাড়িয়েছে ঝর্ণাটিলা হিলফুল ফুযুল যুব সংগঠনটি। পবিত্র ঈদুল ফিতরে আসহায় মানুষ গুলোকে ঈদ আনন্দ দিতে তাদের পরিবারের পাশে দাড়িয়েছে মানবিক সংগঠনটি। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার গরীব আসহায় দুস্থ পরিবারের নিকট সংগঠনের সদস্যরা নিজ দায়িত্বে ঈদ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। প্রায় অর্ধ শতাধিক পরিবারকে এ ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন হিলফুল ফুযুল যুব সংগঠনটি।

সংগঠনের সভাপতি জনাব আব্দুর রউফ বলেনঃ প্রতি বছরের ন্যায় এ বছর ও আমরা ঈদ সামগ্রী বিতরণ ও অসহায় পরিবারের নিকট বিভিন্ন সামগ্রী পৌছে দিয়েছি। সংগঠনের সদস্য ও শুভ কাঙ্খীদের বিভিন্ন ভাবে সহায়তা,দান, অনুদানের অর্থে আমরা এ সহায়তা প্রদান করতে সক্ষম হয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ। এ পবিত্র রমজান মাসে যেন সকল সদস্যদের দান অনুদান আল্লাহ কবুল করেন সে জন্য সকলেই দোয়া করবেন।

সংগঠনের সেক্রেটারি জনাব মাহফুজ আলম বলেনঃ এ প্রক্রিয়া আমাদের সামনেও চলমান থাকবে ইনশাআল্লাহ। এ ছাড়াও আমাদের সংগঠনটি সমাজের বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী ও মানবিক কাজ করে ইতি মধ্যে উপজেলা ও জেলার বিভিন্ন মহলে সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। একটি মানবিক সংগঠনে আমরা নিজেদের সময় শ্রম ও অর্থ ব্যয় করতে পেরে সত্যি খুব ভালো লাগে।

সংগঠনের উপদেষ্টা জনাব এম এ আমিন বলেন যে সময় যুব সমাজ বিভিন্ন নেশা ও পেশায় নিজেদের অপকর্মে লিপ্ত রাখে সে সময় টুকুতে এরুপ কাজ সত্যিই বিরল, সমাজ ও দেশ পরিবর্তনে হিলফুল ফুযুল যুব সংগঠনের মত করে যুব সমাজ এগিয়ে আসলে আমাদের সমাজ বিনির্মাণে অনেক আদর্শিক পরিবর্তন আসবে। হিলফুল ফুযুল একটি আর্দশ নাম, যে নামের অনেক মর্যাদা ও মরতবা রয়েছে। এ নামের সাথে নিজেদের বিভিন্ন কর্মকান্ডকে যথাযথভাবে পরিচালনা করে আখিরাতের জন্য কিছু সদকা ও নেক কর্মের অংশিদার হচ্ছে সংগঠনের সদস্য ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা। যার প্রতিদান আল্লাহ প্রত্যকে দেবেন, ইনশাআল্লাহ । সর্বপরি এ সংগঠন ও এর সদস্য এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্য সকলেই দোয়া করবেন যেন এরুপ মানবিক ও সামাজিক কাজ ভবিষ্যতে চলমান রাখতে পারেন।
যারা আমাদেরকে অর্থ দিয়ে সহায়তা দিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এবং তাদের দানকে আল্লাহ কবুল করুন আমিন।

মন্তব্য বন্ধ আছে তবে ট্র্যাকব্যাক ও পিংব্যাক চালু রয়েছে।